ইবিতে আন্তর্জাতিক সেমিনার অনুষ্ঠিত

ইবিতে আন্তর্জাতিক সেমিনার অনুষ্ঠিত

নিজস্ব প্রতিনিধি

ন্যাচারাল প্রোডাক্টস ফর ড্রাগ ডিসকোভারী এন্ড ডেভেলপমেন্ট শীর্ষক এক আন্তর্জাতিক সেমিনার বুধবার ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের ফলিত রসায়ন ও কেমিকৌশল বিভাগের আয়োজনে প্রকৌশল ও প্রযুক্তি অনুষদ ভবনের নীচতলার হল-রুমে দুপুর ১২টায় শুরু এ সেমিনারে  প্রধান অতিথি হিসাবে ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোঃ হারুন-উর-রশিদ আসকারী এবং বিশেষ অতিথি হিসাবে প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোঃ শাহিনুর রহমান, ট্রেজারার প্রফেসর ড. মোঃ সেলিম তোহা এবং প্রকৌশল ও প্রযুক্তি অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. মমতাজুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন। 

সেমিনারে স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন ফলিত রসায়ন ও কেমিকৌশল বিভাগের সভাপতি ও সেমিনার আয়োজন কমিটির আহ্বায়ক প্রফেসর ড. মোঃ আতিকুর রহমান। তুরস্কের ক্যানকিরী কারাতেকিন বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগের প্রফেসর ড. ইব্রাহিম ডেমিরটাস মূল আলোচক হিসাবে সেমিনারে উপস্থিত ছিলেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোঃ হারুন-উর-রশিদ আসকারী বলেন, ওষুধ উৎপাদনের ক্ষেত্রে দিন-দিন পরিবর্তন আসছে। মানবজাতির মঙ্গলের জন্য ওষুধ তৈরির ক্ষেত্রে প্রাকৃতিক উপাদানগুলো আরও বেশি করে ব্যবহার করা উচিত। তিনি বলেন, নিত্যনতুন ওষুধের আবিষ্কার আমাদের জীবনযাত্রায় ব্যাপক পরিবর্তন আনছে। ভাইস চ্যান্সেলর আশা প্রকাশ করে বলেন, ক্যানকিরী কারাতেকিন বিশ্ববিদ্যালয় এবং ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় যৌথভাবে ওষুধ তৈরির ক্ষেত্রে প্রাকৃতিক উপাদানের ব্যবহার বিষয়ে কাজ করে যাবে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোঃ শাহিনুর রহমান বলেন, আমাদের দৈনন্দিন জীবনে প্রাকৃতিক ও ভেষজ ওষুধের ব্যবহার আরও বাড়াতে হবে। তিনি বলেন, বিশ্বে যেমন নতুন-নতুন রোগের আবির্ভাব ঘটছে তেমনি তা নিরাময়ের ওষুধও তৈরি হচ্ছে। ডাক্তারি পরামর্শ ছাড়া ওষুধ সেবন না-করার অনুরোধ জানান তিনি।

অপর বিশেষ অতিথি ট্রেজারার প্রফেসর ড. মোঃ সেলিম তোহা বক্তব্যে বলেন, এই সেমিনারের মাধ্যমে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় আন্তর্জাতিকীকরণের পথে আরেক ধাপ এগিয়ে গেলো এবং এ বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে ক্যানকিরী কারাতেকিন বিশ্ববিদ্যালয়ের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক সূচিত হলো। 

ধর্মতত্ত্ব অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. আ. ফ. ম. আকবর হোসাইন, প্রফেসর ড. মোঃ আব্দুস সাত্তার, প্রফেসর ড. এম. মনিরুজ্জামান, প্রফেসর ড. রুহুল কে.এম. সালেহ, ছাত্র-উপদেষ্টা প্রফেসর ড. পরেশ চন্দ্র বর্ম্মন, প্রেস প্রশাসক প্রফেসর ড. হাবিবুর রহমান (রহমান হাবিব), পরিবহন প্রশাসক প্রফেসর ড. রেজওয়ানুল ইসলাম, প্রক্টর (ভারপ্রাপ্ত) ড. আনিচুর রহমান, প্রফেসর ড. আহসান-উল-আম্বিয়া প্রমুখ সেমিনারে উপস্থিত ছিলেন।

ad