মেসেঞ্জার চালানোর ১০ কৌশল

মেসেঞ্জার চালানোর ১০ কৌশল

ফাইল ছবি

অনেকেই অনলাইনে চ্যাট করার জন্য ফেসবুকের মেসেঞ্জার ব্যবহার করেন। বিশ্বের দ্বিতীয় জনপ্রিয় মেসেজিং অ্যাপ মেসেঞ্জার। বিশ্বের ১৩০ কোটির বেশি ব্যবহারকারী প্রতি মাসে মেসেঞ্জার ব্যবহার করছেন। মেসেঞ্জারে চ্যাট করার সুবিধার জন্য বেশ কিছু দারুণ ফিচার যুক্ত করেছে ফেসবুক। এ কৌশলগুলো জানা থাকলে আপনার চ্যাটিং আরও মজার হয়ে উঠবে। জেনে নিন ১০ কৌশল:

১. ডাকনাম যুক্ত করা: ফেসবুকে কার সঙ্গে চ্যাট করছেন, তা বুঝতে দিতে চান না? আপনি চাইলে ফেসবুক চ্যাটে ডাকনাম পরিবর্তন করে ফেলতে পারেন। নিজের ও বন্ধুর দুজনের নামই বদলে ফেলা যাবে এতে। নাম পরিবর্তনের জন্য মেসেঞ্জার অ্যাপের কারও সঙ্গে চ্যাটের পাতায় যান। ওই পাতার ডান কোনায় ইংরেজি ‘আই’ অক্ষরটির ওপর চাপ দিন। নিকনেমের যে অপশন আছে, তাতে চাপ দিন। পছন্দের ডাকনাম দিয়ে ‘সেট’ নির্বাচন করে দিন।

২. চ্যাট বন্ধ করা: অনেকেই মেসেঞ্জারে এটা-সেটা প্রতিনিয়ত লিখতেই থাকেন। এতে আপনার অন্য কাজে মনোযোগ নষ্ট হতে পারে। প্রতিমুহূর্তে ফেসবুক মেসেঞ্জারের বার্তা দেখা সম্ভব হয় না। আপনি চাইলে ওই আলাপচারিতা বন্ধ করে দিতে পারেন। মেসেঞ্জার অ্যাপ গিয়ে যে আলাপচারিতা বন্ধ করে চান, তাতে ঢুকে যান। ডান কোনায় ইংরেজি ‘আই’ অক্ষরটি চাপুন। নোটিফিকেশন নির্বাচন করে সেখান থেকে ‘মিউট কনভারসেশন’ করে দিন। এখন থেকে কাউকে কতক্ষণ বন্ধ রাখতে চান, চাইলে তা নির্বাচন করে দিতে পারবেন।

৩. মেসেঞ্জারের রং পরিবর্তন: অনেকেই এখন ব্যক্তিগত আলাপচারিতাকে একটু রঙিন দেখতে চান। তাই মেসেঞ্জারে একেকজনের সঙ্গে একেক রঙে আলাপ করেন। আপনি চাইলে আপনার মেসেঞ্জারে চ্যাটিংয়ের সময় রং বদলে নিতে পারবেন। অ্যাপ থেকে কোনো আলাপচারিতায় যান। ডান কোনায় ‘আই’ অক্ষরটিতে চাপ দিন। এরপর কালার অংশ থেকে সেখানে রং নির্বাচন করে দিন।

৪. ডার্ক মোড চালু করুন: ফেসবুক মেসেঞ্জারে এখন ডার্ক মোড সুবিধা রয়েছে। এতে মেসেঞ্জার দেখতে ভালো লাগে তেমনি চোখের জন্য আরামদায়ক হতে পারে। পাশাপাশি ব্যাটারির চার্জও কম লাগে। ডার্ক মোড চালু করতে মেসেঞ্জার অ্যাপে গিয়ে ওপরের বাঁ দিকের কোনায় প্রোফাইলের ছবিটির ওপর চাপ দিন। শুরুতে ডার্ক মোডের জন্য অপশন পাবেন। সেটি টগল করে দিন।

৫. ব্রাউজারে মেসেঞ্জার ডট কম: কোনো কাজের সময় বা সভার সময় মোবাইল অ্যাপের চেয়ে পিসিতে মেসেঞ্জার ব্যবহার প্রয়োজন হতে পারে। এ ক্ষেত্রে মেসেঞ্জার ডটকম ফেসবুক পেজ বা অ্যাপের বিকল্প হতে পারে। ব্রাউজারে মেসেঞ্জার ডটকম লিখে দরকারি কাজ সেরে নিতে পারবেন।

৬. অডিও বার্তা পাঠানো: অনেকেই ফেসবুকে টাইপ করতে পছন্দ করেন না বা মোবাইলে টাইপ করা কঠিন মনে হতে পারে। আপনি চাইলে অডিও বার্তাও পাঠাতে পারেন। এ জন্য আপনাকে মেসেঞ্জার অ্যাপ থেকে কোনো আলাপচারিতায় যেতে হবে। টেক্সট বক্সের পাশে মাইক্রোফোনের একটি চিহ্ন পাবেন। কথা বলার সময় তা চেপে ধরে কথা বলুন। কথা শেষ হলে তা ছেড়ে দিন।

৭. এসএমএস অ্যাপ হিসেবে ব্যবহার: ফেসবুক মেসেঞ্জারকে আপনার এসএমএস অ্যাপ হিসেবেও ব্যবহার করতে পারেন। ফিচারটি শুধু অ্যান্ড্রয়েড ফোনে কাজ করে। মেসেঞ্জারকে এসএমএস অ্যাপ হিসেবে ব্যবহার করতে মেসেঞ্জার অ্যাপে গিয়ে প্রোফাইলের ছবির ওপর চাপ দিন। সেখানে এসএমএস নির্বাচন করুন। ফিচারটি চালু করতে টগল করে দিন। আপনার সিদ্ধান্ত যাচাই করার জন্য বলা হলে ‘ইয়েস’ করে দিন।

৮. মেসেঞ্জারে গেম: অনেকেই সময় কাটানোর জন্য মেসেঞ্জারে গেম খেলেন। আপনিও চাইলে মেসেঞ্জারে মজার গেম উপভোগ করতে পারেন। গেম খেলতে মেসেঞ্জার অ্যাপে গিয়ে কোনো অ্যাপে যান। সেখানে কোনো আলাপচারিতা নির্বাচন করেন। স্ক্রিনের নিচের দিকে থাকা চার ডটের একটি মেনু বাটনটিতে চাপ দিন। গেম নির্বাচন করুন। খেলতে শুরু করে দিন।

৯. কাউকে অবস্থান জানানো: কোনো জায়গা চিনতে অসুবিধা হচ্ছে। মুখে ঠিকানা বলার চাইতে মেসেঞ্জারে তাকে অবস্থান জানিয়ে দিতে পারেন। মেসেঞ্জার অবস্থান জানানোর সুবিধা রয়েছে। মেসেঞ্জার অ্যাপে গিয়ে আলাপচারিতা নির্বাচন করুন। স্ক্রিনের নিচের দিকে চার ডটের মেনুতে চাপ দিন। জায়গা নির্বাচন করুন। আপনি চাইলে আপনার লাইভ অবস্থান এক ঘণ্টার জন্য শেয়ার করতে পারবেন। ডান দিকের নিচে থাকা লাল বাটন চেপে নির্দিষ্ট অবস্থান ঠিক করতে পারেন।

১০. বার্তা মুছে ফেলা: মেসেঞ্জারে ভুল করে কোনো কিছু লিখে ফেললে এখন তা মুছে ফেলার সুযোগ রয়েছে। মুছে ফেলা বার্তা আর কেউ পড়তে পারবে না। ফেসবুক মেসেঞ্জার অ্যাপে গিয়ে কোনো আলাপচারিতা নির্বাচন করুন। যে বার্তাটি মুছতে চান, তা নির্বাচন করুন। কিছুক্ষণ ওই বার্তাটির ওপর চাপ দিয়ে রাখুন। দেখবেন ডান কোনার নিচের দিকে ‘রিমুভ’ অপশন দেখা যাবে। সেটি নির্বাচন করে দিন। এটি শুধু আপনার নিজের জন্য মুছে ফেলতে পারেন। এতে আপনি দেখবেন না কিন্তু অন্যরা দেখবে। যদি ‘রিমুভ ফর এভরিওয়ান’ নির্বাচন করেন তবে তা অন্যরা দেখবে না।